x 
Empty Product
Tuesday, 01 May 2018 15:29

বাগআঁচড়ার আম চাষীরা ইউরোপের বাজার ধরতে উন্মুখ

Written by 
Rate this item
(0 votes)

যশোরের শার্শা উপজেলার বাগআঁচড়াসহ পাশের গ্রামগুলোর বাগানে এখন থোকায় থোকায় ঝুলছে আম। আম পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছেন চাষিরা। ইউরোপের বাজার ধরতে উত্তরণ সফল ও সলিডারিডাড নেটওয়ার্ক এশিয়া থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে আম গাছে বিশেষ যত্ন নিচ্ছেন তারা। আর কিছু দিনপরেই বাজারে আসবে আম।

পাইকারি ব্যবসায়ীরা আম বাগান কিনে পরিচর্যা করছেন। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে আমের বাম্পার ফলন হবে বলে আশা করেন চাষিরা।

জানা যায়, চলতি বছর বাগআঁচড়া ও শার্শা সহ উপজেলায় ৩ শত ৯০ হেক্টর জমিতে আম চাষ হয়েছে। এর মধ্যে আমের বাগান রয়েছে এক হাজার ৫শ’টি। আম উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ১৫ হাজার মেট্রিক টন। এ এলাকায় গোবিন্দভোগ, হিমসাগর, ন্যাংড়া, গোপালভোগ, বোম্বাই, আম্রপালিসহ নানা জাতের আম বাগান রয়েছে। চাষিরা নিয়মিত এসব বাগানের আম পরিচর্যা করছেন। সবকিছু ঠিক থাকলে চলতি মৌসুমে এলাকার চাহিদা মিটিয়েও আম বিদেশে রফতানি হবে বলে মনে করছেন তারা।

এদিকে আমের ন্যায্য মূল্য ও এলাকায় একটি হিমাগার স্থাপনের দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় আম চাষিরা।

দীর্ঘদিনের আমচাষী শার্শার বাগুড়ী গ্রামের লুকমান বলেন, উত্তরণ সফল ও সলিডারিডাড নেটওয়ার্ক এশিয়ার সহযোগিতায় আম চাষ করে দেশে-বিদেশের মানুষের কাছে নিরাপদ ও বিষমুক্ত আম পাঠাতে পারি সে উদ্দেশ্য নিয়ে এবার বিভিন্ন রকম প্রশিক্ষণের মাধ্যমে গাছের ফ্লালামন প্যাক ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী ব্যবহার করেছি। তিনি এবার ১৪ বিঘা জমিতে আম চাষ করেছেন। তাতে খরচ হয়েছে এক লাখ ২০ হাজার টাকা। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে ও বাজারজাত ভাল হলে সাত লাখ টাকা লাভ করবেন বলে জানান তিনি।

শার্শা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হীরক কুমার সরকার সাংবাদিকদের জানান- ‘বাগআঁচড়া ও শার্শা সহ উপজেলায় ৩৯০ হেক্টর জমিতে আম চাষ হয়েছে। উপজেলায় প্রায় দেড় হাজার চাষি আম চাষের সঙ্গে জড়িত আছে। আশা করছি এ সকল বাগানে প্রায় দেড় হাজার মেট্রিক টনের অধিক আম উৎপাদিত হবে। যা এলাকার চাহিদা মিটিয়ে ইউরোপসহ অন্যান্য দেশে রফতানি হবে। আম চাষিদেরকে এনএটিপি ফেস-২ এর আওতায় প্রশিক্ষণসহ তাদেরকে বিভিন্ন ধরণের উপকরণ দিয়ে সহায়তা প্রদানের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

Read 1783 times

Leave a comment

Make sure you enter the (*) required information where indicated. HTML code is not allowed.