x 
Empty Product
Tuesday, 18 October 2016 07:36

ফরমালিন দেয়া ভারতীয় পাকা আমে বাজার সয়লাব

Written by 
Rate this item
(0 votes)

থানীয়ভাবে পাকা আম বাজারে আসতে আরও ৩০ থেকে ৪৫ দিন বাকি। তার আগেই হঠাৎ করে চাঁপাইনবাবগঞ্জ, রাজশাহী, নওগাঁসহ আশপাশের চেনা-অচেনা ছোট-বড় বাজারে পাকা আমে ভর্তি হয়ে গেছে। আর এই আম এসেছে ভারতের বিভিন্ন প্রদেশ থেকে। যা ফরমালিন, কার্বাইডসহ অন্যান্য বিষাক্ত কেমিক্যালে পাকানো ভারতীয় আম। বাজার ছেয়ে যাওয়া এসব নিম্নমানের জাতবিহীন পাকা আম একটুও কোন ধরনের সাদ নেই। দূর থেকে দেখতে টুকটুকে রঙিন এসব পাকা আমের বাজার মূল্য ধরা হচ্ছে ১৫০ টাকা থেকে ২০০ শ’ টাকা কেজি দরে। হাট- বাজার ছেয়ে যাওয়া এসব আমের একটি বড় অংশ এসেছে বৈদেশিক মুদ্রার বিনিময়ে আমদানি হয়ে। এসবের পাশাপাশি সোনামসজিদসহ জেলার ১১টি পয়েন্ট ছাড়াও নওগাঁর, শিমলতালা, ধামুরহাট, কালুপাড়া, সাপাহারের পাতীড়ী, হাঁপানী ও গোদাগাড়ীসহ তিন জেলার অন্যান্য সীমান্ত দিয়ে চোরাইপথে এসব আম আনা হচ্ছে বলে জানা গেছে। মার্চের শেষ সপ্তাহ থেকে এসব আম স্থানীয় বাজারের ফলের দোকানসমূহে শোভা পচ্ছে। কার্বাইড, ফরমালিনসহ বিভিন্ন বিষাক্ত মেডিসিন দ্বারা পাকানোর ফলে স্বাস্থ্যহানি ঘটাসহ শরীরে নানা উপসর্গ দেখা দেয়ার আশঙ্কা থাকলেও মৌসুমের নতুন ফল হবার কারণে ঝুঁকি নিয়েই ক্রেতারা দেদার ক্রয় করে যাচ্ছে পাকা আম। ভারত থেকে সীমান্ত পথে বানের পানির মতো আসা বিষাক্ত কেমিক্যালে পাকানো ক্ষতিকর এসব আম ফলে দোকানে বিক্রি হলেও কেউ কিছু বলছে না। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় স্বাস্থ্য বিভাগের একাধিক কর্মকর্তা জানান, বিষ সমতুল্য এসব আম বিক্রির ব্যাপারে যৌক্তিক বাধাদানের কোন সরাসরি এখতিয়ার না থাকায় তারা অসহায়। তবে ভ্রাম্যমাণ আদালত ও স্থানীয়ভাবে গঠিত ফরমালিন প্রতিরোধ কমিটি ইচ্ছা করলে এই ধরনের আম বিক্রি বন্ধ করতে পারে। এমনকি যেসব প্রতিষ্ঠান ফল আমদানি করে সঙ্গে বৈঠক করে তাদের আম ফল আমদানিতে নিরৎসাহিত করার পরামর্শ দিতে পারে। কিন্তু কেউ এগিয়ে আসছে না এসব প্রতিরোধে। আর বিষাক্ত পাকা ভারতীয় আম আসা অব্যাহত রয়েছে।

Read 1784 times

Leave a comment

Make sure you enter the (*) required information where indicated. HTML code is not allowed.